প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০২১ সার্কুলার প্রকাশ

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০২১ সার্কুলার প্রকাশিত হয়েছে। প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ ২০১৯ পরীক্ষার তারিখ ২০২১ অর্থাৎ ২০১৯ বর্ষের প্রাথমিকের ৩২,৫৭৭ পদের সহকারী শিক্ষকের নিয়োগ পরীক্ষা ২০২১ সালে সংঘটিত হতে যাচ্ছে। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩২,৫৭৭ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০২১ – আবেদন ২৪ লাখ সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০২১। হিসাব মতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় অংশ নিতে ১৩ হাজার পদের বিপরীতে আবেদন জমা পড়েছে ২৪ লাখের বেশি।

নভেম্বরে পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ হতে চলেছে ডিসেম্বরে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা কবে হবে? এই প্রশ্নের জবাবে সম্প্রতি এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। সেখানে উল্লেখ্য রয়েছে যে আগামী ডিসেম্বর ২০২১ মাসে শুরু হতে পারে। তো চলুন, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ ২০২১ সম্পর্কিত সকল খবরাখবর জেনে নেওয়া যাক।

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০২১ সার্কুলার


প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা কবে হবে? প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ ২০২১ যোগ্যতা, প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ সার্কুলার, প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ সিলেবাস, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের সর্বশেষ খবর, Primary Teacher Exam Date 2021, DPE Primary School Teachers Jobs Test Date 2022. প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ ২০২১ ইত্যাদি সম্পর্কে অবগত হতে পুরো পেজটি মন দিয়ে পড়তে থাকুন।

প্রাথমিকে ৩২,৫৭৭ পদে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা দ্রুত

করোনা সংক্রমণের হার কমে যাওয়ার কারনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন বলেছেন যে, শিক্ষক স্বল্পতা দূর করতে আগামী ডিসেম্বরের ২০২১ -এর মধ্যে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩২ হাজার ৭০০ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ নিয়োগ সম্পন্ন হলে শিক্ষকরা আরও স্বাচ্ছন্দে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পাঠদান করতে পারবেন।

২০১৯ সালের অর্থাৎ গত বছরের আগের বছর ২৫ অক্টোবর অনলাইনে আবেদন শুরু হয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নতুন শিক্ষক নিয়োগের নিমিত্তে। আবেদনপ্রক্রিয়া শেষ হয় গত বছরের ২৪ নভেম্বর রাতে। এর পরের ৭২ ঘণ্টা সময় ছিল পেমেন্ট করার জন্য।

পেমেন্ট শেষে ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ জন প্রার্থী ৩২ হাজার ৫৭৭ পদের জন্য আবেদন করেছেন। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক বলেন ইতোমধ্যে প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০২১ সার্কুলার সম্পর্কে বলেছেন,

“সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সারা দেশ থেকে ৩৪ হাজার ১০০টি পদে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে জন্য আবেদন চাওয়া হয়েছিল। এতে আবেদন জমা পড়েছে ২৪ লাখের বেশি। এত বিপুল পরিমাণ আবেদন জমা পড়ার কারণে নিয়োগ পরীক্ষা নিতে আমাদের অনেক ভাবতে হচ্ছে।”

অপরদিকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ এম মনসুরুল আলম জানিয়েছেন যে, প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ ২০২০ পরীক্ষার তারিখ। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা না পর্যন্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারি শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা আয়োজন করা সম্ভব নয়। তাই এখন শুধু ২০১৯ নিয়েই ভাবা হচ্ছে।

ডিসেম্বরের কথা উল্লেখ্য থাকলেও প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০২১ আয়োজনের প্রস্তুতি চূড়ান্ত পর্যায়ে নিতে আমরা জানুয়ারী- ফেব্রুয়ারী ২০২২ মাসে পরীক্ষা নিতে মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছি। মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পেলে জানুয়ারী- ফেব্রুয়ারী ২০২২ মাসে এই পরীক্ষা নেওয়া শুরু হবে।

বিপুল পরিমাণে আবেদনকারীর পরীক্ষা এক দিনে নেওয়া সম্ভব নয়। তাই জানুয়ারী- ফেব্রুয়ারী ২০২২ মাসের প্রতি শুক্রবার এ পরীক্ষা নিতে মন্ত্রণালয়ের মতামত চাওয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে সংকেত পেলে পরীক্ষা শুরু করা হবে।

প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ ২০২১

ঢাকা বিভাগে ২ লাখ ৪০ হাজার ৬১৯ টি, রাজশাহীতে ২ লাখ ১০ হাজার ৪৩০ টি, খুলনায় ১ লাখ ৭৮ হাজার ৮০৩ টি, ময়মনসিংহে ১ লাখ ১২ হাজার ২৫৬ টি, চট্টগ্রামে ১ লাখ ৯৯ হাজার ২৩৬ টি, বরিশালে ১ লাখ ৯ হাজার ৩৪৪টি, সিলেট ৬২ হাজার ৬০৭টি এবং রংপুর বিভাগে ১ লাখ ৯৬ হাজার ১৬৬ টি।

তিনি জানান, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পেতে আবেদন করেছেন ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ জন। সহকারী শিক্ষকের পদ ৩২ হাজার ৫৭৭টি। এসব পদের বিপরীতে আবেদন জমা পড়েছে ১৩ লাখের কিছু বেশি। এতে একটি পদের জন্য চাকরিপ্রত্যাশী ৪০ জন প্রার্থী পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা পদ্ধতি ২০২১

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০২১ নির্বাচন পদ্ধতি হবে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে। লিখিত পরীক্ষা হবে এমসিকিউ পদ্ধতিতে। আর হ্যাঁ, লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে প্রার্থীকে মৌখিক পরীক্ষায় আহবান করা হবে। লিখিত পরীক্ষার বিষয় সমূহ হচ্ছে বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞান।

প্রতিটি বিষয় থেকে ২০ টি করে সর্বমোট ৮০ টি নৈর্ব্যত্তিক প্রশ্ন থাকবে। তবে এবারে নিয়োগে কত নম্বরের পরীক্ষা হবে এ বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তবে এটা জানান হয়েছে যে, পরীক্ষা পদ্ধতি ও পরীক্ষার তারিখ পরবর্তীতে জানিয়ে দিয়ে দিবে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। যাইহোক এখন আমরা বিগত বছরের পরীক্ষার আলোকে জেনে নেই ‘প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক নিয়োগ’ পরীক্ষার সিলেবাস ও মানবন্টন। তো ছলুন জেনে নেওয়া যাক।

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার মানবন্টন

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা সর্বমোট ১০০ নম্বরের উপর। এর মধ্যে লিখিত পরীক্ষায় থাকবে ৮০ নম্বর এবং মৌখিক পরীক্ষায় থাকবে ২০ নম্বর। লিখিত ৮০ নম্বরের পরীক্ষায় প্রতি বিষয়ের জন্য ২০ নম্বর বরাদ্ধ এবং মৌখিক পরীক্ষায় উপস্থিতি, স্মার্টনেস, প্রশ্নের উত্তর এবং এসএসসি ও এইচএসসি ফয়ালফলের উপর পৃথকভাবে ৫ নম্বর থাকবে।

বিঃ দ্রষ্টব্যঃ প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে অর্থাৎ চারটা ভুল হলে মোট মার্ক হতে এক নম্বর কাটা যাবে। আর আপনি যদি ৮০ নম্বরের মধ্যে ৭০ নম্বরের উপরে পান, তাহলে আপনার চাকরী হওয়ার প্রায় সম্ভাবনা থাকবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র জানায়, প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হওয়ার পর গত বছরের ১ আগস্ট থেকে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত অনলাইনে ২৪ লাখের বেশি আবেদন জমা পড়েছে। নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন করা হবে ডিজিটাল পদ্ধতিতে। 

তো এই ছিল আমাদের আজকের পোস্ট। যদি কোথাও বুঝতে সমস্যা হয় তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। আপনি যদি নিয়মিত পরীক্ষার রুটিন সহ অন্যান্য তথ্য এবং সরকারি ও বেসরকারি চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পেতে চান তাহলে নোটিফিকেশন আইকনে ক্লিক করে সাবস্ক্রাইব করুন।

যেকোনো বিজ্ঞপ্তির পরবর্তী আপডেট পেতে এবং নিত্য নতুন চাকরির খবর দেখতে চাইলে আমাদের সাথে ফেসবুকে যুক্ত হোন। ধন্যবাদ,,,,

Setu Rani
Setu Ranihttps://allgovtjobcircular.com/
আমি সেতু। অনার্সে পড়ুয়া মেয়ে আমি। আমার গল্প লিখতে অনেক ভালো লাগে সেই সাথে ভালো লাগে নতুন নতুন শিখতে। আমি ব্লগিং, এসইও এবং লিখালিখি তে পারদর্শী।

4 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles

x