আয়না দেখার দোয়া | আয়না দেখে বিশ্বনবি যে দোয়া পড়তেন

আল্লাহতায়ালা প্রত্যেকটি মানুষকে সর্বোৎকৃষ্ট অবয়বে সৃষ্টি করেছেন। পবিত্র কোরআনে তিনি স্বয়ং বলেছেন ” আমি মানুষকে সর্বোচ্চ সুন্দর অবয়বে সৃষ্টি করছি” (সুরা ৩: আয়াত: ০৪) অর্থাৎ সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব মানুষের মুখবায়বের সৌন্দর্য আল্লাহ তায়ালার অপর নিয়ামত। 

আয়নায় মুখ দেখার দোয়া

আমরা স্বভাবতই আয়নায় মুখ দেখে। হাদীসে বর্ণিত রয়েছে আয়না দেখা এবং সেইসাথে পরিপাটি থাকা রাসূল সাঃ এর সুন্নত। কারণ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম স্বয়ং আয়না দেখলে দোয়া পাঠ করতেন। যে কারণে প্রত্যেক মুসলিম ও মুমিন বান্দাদের জন্য আয়না দেখার দোয়া পড়া সুন্নত হিসেবে পরিগণিত।এমন অনেক মুসলিম ব্যক্তি রয়েছেন যারা আয়না দেখলেই দোয়া পাঠ করেন । যা মুসলিম উম্মাহর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তো আসুন আজকের এই কনটেন্ট এর মাধ্যমে জেনে নেই আয়না দেখার দোয়া। আয়নায় মুখ দেখার দোয়া সম্পর্কে প্রচলিত দোয়া গুলো কোনগুলো এবং রাসুল সাঃ স্বয়ং আয়না দেখার সময় কোন দোয়া পাঠ করতেন।

আয়না দেখার দোয়া আরবিতে

اللهم أنت حسّنت خلقي فحسن خُلقي

আয়না দেখার দোয়া বাংলা উচ্চারণ

“আল্লাহুম্মা আনতা হাস্সানতা খালক্বি, ফাহাসসিন খুলুক্বি”

আয়না দেখার দোয়া অর্থ

হে আল্লাহ, আপনি আমার চেহারায় সৌন্দর্য দিয়েছেন। অতএব আমার চরিত্রেও সৌন্দর্য দান করুন।

আয়না দেখার নিয়ম

আয়নায় মুখ দেখার নিয়ম হলো, প্রথমেই আয়নার সামনে দাড়িয়ে চোখ আয়নার ওপর ফেলতেই اللهم أنت حسّنت خلقي فحسن خُلقي পাঠ করা। তবে হাদিসে ও পবিত্র কোরআনে, আরও কিছু দুয়া রয়েছে যেগুলো আয়না দেখার দোয়া হিসেবে পরিগনিত।

আল্লাহ তাআলা কোরআনে যার চরিত্রকে মহান বলে ঘোষণা দিয়েছেন। তিনিই আয়নায় চেহারা দেখলই বলতেন- اللهُمَّ أَحْسَنْتَ خَلْقِي ، فَأَحْسِنْ خُلُقِي.

রাসুল (সা.) আয়নায় মুখ দেখার সময় বলতেন- 

اللهُمَّ أَحْسَنْتَ خَلْقِي ، فَأَحْسِنْ خُلُقِي

উচ্চারণ

আল্লাহুম্মা আহসানতা খালক্বি, ফাআহসিন খুলুক্বি

অর্থ

হে আল্লাহ, আপনি আমার চেহারা সুন্দর করেছেন। অতএব আমার চরিত্রও সুন্দর করে দিন। (সহিহুল জামে, হাদিস : ১৩০৭)

তবে আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস বর্ণনা করেন, রাসুল (সা.) যখন আয়না দেখতেন তখন তিনি বলতেন-

الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِي حَسَّنَ خَلْقِي وَخُلُقِي ، وَزَانَ مِنِّي مَا شَانَ مِنْ غَيْرِي

যার উচ্চারণঃ আলহামদুলিল্লাহিল্লাজি হাসসানা খালক্বি ওয়া খুলুক্বি; ওয়া যানা মিন্নি মা শানা মিন গাইরি। আর অর্থঃ আল্লাহর শোকরিয়া, যিনি আমার চেহারা ও আচরণে সৌন্দর্য দিয়েছেন এবং আমাকে অন্য কারো অসৌন্দর্য থেকে রক্ষা করে সুন্দর করেছেন। (আবু ইয়ালা, হাদিস : ২৬১১)

অপরদিকে আনাস ইবনে মালিক (রা.) বলেন যে রাসুল (সা.) যখন আয়নায় নিজের চেহারা দেখতেন, তখন তিনি বলতেন-

الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِي سَوَّى خَلْقِي فَعَدَلَهُ ، وصَوَّرَ صُورَةَ وَجْهِي فَحَسَّنَهَا، وَجَعَلَنِي مِنَ الْمُسْلِمِينَ

যার উচ্চারণঃ আলহামদুলিল্লাহিল্লাজি সাওয়া খালক্বি ফাআদালাহু, ওয়া সাওয়ারা সুওরাতা ওয়াজহি ফাহাসসানাহা, ওয়া জাআলানি মিনাল মুসলিমিন।

আর অর্থঃ আলহামদুলিল্লাহিল্লাজি সাওয়া খালক্বি ফাআদালাহু, ওয়া সাওয়ারা সুওরাতা ওয়াজহি ফাহাসসানাহা, ওয়া জাআলানি মিনাল মুসলিমিন।

আরও দেখতে পারেনঃ

আর আনাস ইবনে মালিক (রা.) থেকে বর্ণিত আরেক হাদিসে রয়েছে, রাসুল (সা.) হাতে আয়না নিয়ে তাতে তাকিয়ে বলতেন,

الحمد لله ، أكمل خلقي ، وحسن صورتي ، وَزَانَ مِنِّي مَا شَانَ مِنْ غَيْرِي

এর উচ্চারণঃ আলহামদুলিল্লাহ, আকমালা খালক্বি, ওয়া হাস্সানা সুওরাতি, ওয়া যানা মিন্নি মা শানা দত গাইরি। অর্থঃ‘সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর, যিনি আমার অঙ্গ-সৌষ্ঠবের পূর্ণতা দিয়েছেন এব আমার অবয়ব সুন্দর করেছেন। অন্যের অসুন্দরতা থেকে আমাকে রক্ষা করে সৌন্দর্য দিয়েছেন। (জাওয়ায়েদুজ জুহদ : ১১৭৪)

Setu Rani
Setu Rani

Hi, there. I'm a simple girl with passionate about blogging and writing. I love to take on challenges in life.

Articles: 168

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *