বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়োগ ২০২২ সার্কুলার

বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়োগ ২০২২ Bangladesh Bank Circular 2022: সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে। তারা স্নাতক পাসে নিম্নেবর্ণিত পদের জন্য দক্ষ ও যথোপযুক্ত লোক খুঁজছেন। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে উপযুক্ত নারী-পুরুষ উভয় প্রার্থীদেরকে আবেদন করার আহ্বান জানানো যাচ্ছে। বিস্তারিত অফিসিয়াল বিজ্ঞপ্তিতে দেখুন।

বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়োগ ২০২২

এক নজরে

চাকরির ধরণসরকারি চাকরি
প্রতিষ্ঠানের নামবাংলাদেশ ব্যাংক
পদের নামঃবিজ্ঞপ্তিতে দেখুন
শুন্যপদ৫০৯০
বয়সঃ১৮-৩০ বছর
শিক্ষাগত যোগ্যতাস্নাতক/স্নাতকোত্তর
জেলাসকল জেলা
আবেদনের শেষ তারিখ৩০ জানুয়ারি ও ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২
আবেদনের পদ্ধতিঅনলাইনে/ডাকযোগে

দেখে নিনঃ চলমান সরকারি চাকরি বিজ্ঞপ্তির তালিকা

  • পদের নামঃ অফিসার (জেনারেল/ক্যাশ/আইটি/আরসি/এক্স ক্যাডেট-গ্রন্থাগার)
  • পদের সংখ্যাঃ ৫০৯০ জন
  • শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ স্নাতক/স্নাতকোত্তর ডিগ্রী।
  • আবেদন করতে ক্লিক করুন
  • পদের নামঃ প্রোগ্রামার
  • পদ সংখ্যাঃ ০১ টি
  • শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ বিজ্ঞপ্তিতে দেখুন
  • পদের নামঃ সিনিয়র অফিসার
  • পদ সংখ্যাঃ ০১ টি
  • শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ বিজ্ঞপ্তিতে দেখুন

বাকি পদ গুলো নিচের বিজ্ঞপ্তিতে দেখুন

বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়োগ
বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়োগ ২০২২ সার্কুলার

আরও দেখতে পারেন

আবেদনের নিয়মাবলী ও শর্তাবলী

আবেদন পদ্ধতিঃ অনলাইন আবেদন ফরম কেবল বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়োগ সংক্রান্ত ওয়েবসাইট (erecruitment.bb.org.bd)-এ পাওয়া যাবে এবং প্রদত্ত আবেদন ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। সেই সাথে অনলাইনে আবেদন দাখিলের বিস্তারিত নিয়ম ও শর্তাবলী ওয়েবসাইটেই পাওয়া যাবে।

অনলাইন আবেদনে প্রার্থীর নাম, পিতা ও মাতার নাম (এসএসসি অথবা সমমানের সনদ অনুযায়ী), স্থায়ী জেলা, জন্ম তারিখ, ছবি, স্বাক্ষরসহ অন্যান্য তথ্য অত্যন্ত সতর্কতার সাথে নির্ভুলভাবে পূরণ করতে হবে। পাশাপাশি আবেদনে প্রদত্ত সার্বিক তথ্য, ছবি, স্বাক্ষর ইত্যাদি ভেরিফিকেশন সাপেক্ষে প্রাথমিকভাবে যোগ্য প্রার্থীদের নির্বাচনী ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশহণের সুযোগ প্রদান করা হবে।

প্রার্থীর স্থারী ঠিকানাঃ প্রার্থীর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/পৌরসভার মেয়র/ওয়ার্ড কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত জাতীয়তা সনদে উল্লিখিত স্থায়ী ঠিকানা মোতাবেক প্রার্থীর স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে উল্লেখ করতে হবে। কিন্তু হ্যাঁ অবিবাহিত মহিলা প্রার্থীগণ আবেদন দাখিলের পরে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলে যথাযথ প্রমাণ সাপেক্ষে স্বামীর স্থায়ী ঠিকানার অনুকূলে নিজের স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন। প্রার্থীর বর্তমান ঠিকানাঃ প্রার্থীর বর্তমান বসবাসের স্থান এবং নিয়োগ সংক্রান্ত চিঠিপত্র পেতে ইচ্ছুক ঠিকানাকে বর্তমান ঠিকানা হিসেবে উল্লেখ করতে হবে।

আবেদন ফিঃ অফেরতযোগ্য টা. ২০০/- (টাকা দুইশত মাত্র) যা ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড এর পেমেন্ট গেটওয়ে “রকেট” এর মাধ্যমে আবেদনকারীকে নিজের অথবা এজেন্ট একাউন্ট ব্যবহার করে ফি প্রদান করতে হবে ।

ছবিঃ ইতোপূর্বে নিবন্ধনকৃত প্রার্থীগণ বিদ্যমান ছবি ব্যবহার করতে পারবেন। তবে নতুন প্রার্থীকে অবশ্যই নির্ধারিত স্থানে ৬০০*৬০০ পিক্সেল ও ১০০ কিলোবাইট এর বেশী নয় এরূপ মাপের অনধিক তিন মাস পূর্বে তোলা রঙিন ছবি (সাদা ব্যাকগ্রাউন্ড সম্বলিত) স্ক্যান করে আপলোড করতে হবে। ছবি তোলার সময় মুখ ও কানের উপর আবরণ রাখা যাবে না। সাদাকালো ছবি এবং ইনফরমাল ছবি আপলোড করলে সরাসরি প্রার্থীতা বাতিল বলে গণ্য হবে।

জব আইডি নংঃ বর্ণিত পদের জব আইডি দেখে আবেদন ফি প্রদানের সময় নির্ধারিত স্থানে ব্যবহার করতে হবে। সিভি আইডি নংঃ বাংলাদেশ ব্যাংকের সিস্টেমে ইতঃপূর্বে নিবন্ধনকৃত প্রার্থীদের বিদ্যমান সিভি আইডি নং এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে অনলাইনে আবেদন দাখিল করতে হবে। নতুন আবেদনকারীগণ ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে অনলাইন এ আবেদন সম্পন্ন করলে একটি সিভি আইডি নং এবং পাসওয়ার্ড প্রাপ্ত হবেন।

স্বাক্ষরঃ নির্ধারিত স্থানে ৩০০*৮০ পিক্সেল ও ৬০ কিলোবাইট এর বেশী নয় এরূপ মাপের প্রার্থীর নিজের স্বাক্ষর স্ক্যান করে আপলোড করতে হবে। স্বাক্ষর অবশ্যই সাদা কাগজের উপর কালো কালিতে হতে হবে। সেই সাথে অর্জিত ডিগ্রীর ফলাফলের তারিখঃ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কর্তৃক প্রকাশিত সংশ্লিষ্ট ডিগ্রির ফলাফল প্রকাশের তারিখ অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে।

প্রবাসি ডিগ্রীধারী প্রাথীঃ প্রার্থী ও লেভেল/এ লেভেল পাস হলে দেশীয় সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ড হতে ইস্যুকৃত সমমান সার্টিফিকেট এবং বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয় হতে ডিগ্রী প্রাপ্ত হলে দেশীয় সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়/বিশ্ববিদ্যালয় কমিশন/শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক ইস্যুকৃত সমমান সার্টিফিকেট অনুযায়ী ডিগ্রি ও ফলাফলের (শ্রেণী/বিভাগ/জিপিএ/সিজিপিএ উল্লেখসহ) তথা মৌখিক পরীক্ষার সময় চেকিং বোর্ডে অবশ্যই উপস্থাপন করতে হবে। অন্যথায় মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে না।

এ. প্রতিষ্ঠান পছন্দের ক্রমঃ আবেদনে প্রার্থীগণকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লিখিত প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানকে বিবেচনায় নিয়ে প্রতিষ্ঠান পছন্দের ক্রম নির্ধারণ করতে হবে। চূড়ান্তভাবে মনোনীত প্রার্থীগণকে তাদের অর্জিত মেধাক্রম এবং অনলাইন আবেদনে উল্লিখিত পছন্দের ক্রম অনুসারে শূণ্যপদ থাকা সাপেক্ষে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে পদায়ন করা হবে। আবেদন দাখিলের পর আবেদনকৃত প্রতিষ্ঠান পছন্দের ক্রম কোনো অবস্থাতেই পরিবর্তনযোগ্য নয়।

ট্র্যাকিং পেজ সংগ্রহঃ পেমেন্ট ভেরিফাই সম্পন্ন হওয়ার পর প্রার্থীকে ট্র্যাকিং আইডি নং সম্বলিত ১টি ট্র্যাকিং পেজ প্রদান করা হবে। ট্র্যাকিং পেজ টি ভবিষ্যতে ব্যবহারের জন্য সংরক্ষণ করতে হবে। ট্র্যাকিং পেজ সংরক্ষণ করলেই প্রার্থীর আবেদন সম্পন্ন হয়েছে বলে বিবেচিত হবে। নির্ধারিত সময়ের পরে কোনো অবস্থাতেই ট্র্যাকিং পেজ এর ডুপ্লিকেট সরবরাহ করা হবে না।

আবেদন ফি প্রদানের উল্লেখিত পদ্ধতিঃ আবেদন ফি পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করতে হবে। ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড এর পেমেন্ট গেটওয়ে ‘রকেট’ এর প্রি-পেইড অথবা, ইন্সট্যান্ট পেমেন্ট পদ্ধতি ব্যবহার করে ফি প্রদান করা যাবে।

প্রি-পেইড পদ্ধতিঃ রকেট এপস বা ম্যানুয়াল উভয় ক্ষেত্রেই ফি প্রদানের জন্য Biller ID হিসেবে Bankers Selection Committee Secretariat অথবা ৪৯৯ সিলেক্ট করতে হবে । পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে সংশিষ্ট জব আইডি নং, নিজ সিভি আইডি নং এর ১ম অংশ [হাইফেনের (-) আগের অংশ,

ফি এর পরিমাণসহ প্রয়োজনীয় তথ্য ব্যবহার করে ফি প্রদান করতে হবে। ফি প্রদান করলে প্রার্থী মোবাইলের মেসেজ অপশনে একটি Transaction ID নন্বর পাবেন। প্রাপ্ত নম্বরটি ব্যবহার করে প্রার্থীকে অবশ্যই পৃথকভাবে পেমেন্ট ভেরিফাই সম্পন্ন করতে হবে। অন্যথায় আবেদন অসম্পূর্ণ রয়ে যাবে।

ইন্সট্যান্ট পেমেন্ট পদ্ধতিঃ আবেদনের সময় বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটের পেমেন্ট অপশন হতে ইন্সট্যান্ট পেমেন্ট নির্বাচন করলে প্রার্থী সরাসরি রকেট এর ১টি লিংক পাবেন। উক্ত লিংকের মাধ্যমে রকেট একাউন্ট হতে ফি প্রদানের পরপরই মোবাইলের মেসেজ অপশনে ১টি OTP পাবেন। প্রান্ত OTP টি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে লিংকের নির্দিষ্ট ফিন্ডে বসিয়ে প্রার্থীকে পেমেন্ট সম্পন্ন করতে হবে।

পেমেন্ট ভেরিফাইঃ প্রি-পেইড পদ্ধতিতে প্রার্থীগণকে ফি প্রদানের পর প্রাপ্ত TnxID বাংলাদেশ ব্যাংকের সাইটের নির্দিষ্ট ফিন্ডে বসিয়ে পেমেন্ট ভেরিফাই সম্পন্ন করতে হবে। ইন্সট্যান্ট পেমেন্ট পদ্ধতিতে প্রার্থীগণকে পৃথকভাবে পেমেন্ট ভেরিফাই করার প্রয়োজন নেই ।

প্রার্থীদেরকে নির্বাচনী পরীক্ষা এবং মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। অনলাইনে আবেদনের সময় কোনো কাগজপত্র প্রেরণ করতে হবে না। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীরঘপ্রা্থীণণকে অনলাইন আবেদনে প্রদত্ত প্রতিটি তথ্যের স্বপক্ষে যথাযথ সনদ প্রত্যয়নপত্র মৌখিক পরীক্ষার দিন দাখিল করতে হবে। অনলাইন আবেদনে প্রার্থী কর্তৃক প্রদত্ত তথ্যের সঠিকতা যাচাইয়ান্তে কোনো ত্রুটি ধরা পড়লে মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হবে না।

তাছাড়া, মৌখিক পরীক্ষা শেষে প্যানেল প্রস্তুতিকালে কোনো প্রকার ত্রুটি পরিলক্ষিত হলেও প্রার্থীকে প্যানেলভূক্ত করা হবে না। চাকরীরত প্রার্থীদের তাদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের পূর্বানুমোদনক্রমে আবেদন করতে হবে এবং মৌখিক পরীক্ষার দিন উক্ত অনুমোদনের কপি প্রদর্শন করতে হবে। নিয়োগের ক্ষেত্রে কোটা সংক্রান্ত সরকারি সর্বশেষ নীতিমালা ও অন্যান্য বিধি-বিধান যথাযথভাবে অনুসরণ করা হবে।

প্রাথমিকভাবে যোগ্য প্রার্থীদের প্রবেশপত্র ও নির্বাচনী পরীক্ষার তারিখ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি যথাসময়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়োগ সংক্রান্ত ওয়েবসাইট ও দৈনিক জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশ করা হবে। উল্লেখ্য, প্রার্থীদের অবহিতকরণের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ হতে এসএমএস/ই-মেইল/ফোন/পত্র প্রেরণ

বা অন্য কোনো মাধ্যমে কোনো প্রকার যোগাযোগ করা হবে না। সংশ্লিষ্ট ব্যাংক/আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহ প্রার্থীদের নিয়োগ প্রদান করা বা না করার ক্ষেত্রে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের অধিকার সংরক্ষণ করে। ব্যাংকিং ও আর্থিক সেবা পেতে হয়রানির শিকার হলে কিংবা কোনো অভিযোগ থাকলে ১৬২৩৬ নম্বরে ফোন করুন।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ আবেদনের শেষ সময়সীমার অপেক্ষা না করে হাতে যথেষ্ট সময় নিয়ে নির্ভুলভাবে আবেদনপত্র দাখিল, নির্ধারিত ফি প্রদান করার জন্য পরামর্শ দেয়া হল।

যেকোনো বিজ্ঞপ্তির পরবর্তী আপডেট পেতে এবং নিত্য নতুন চাকরির খবর পেতে আমাদের সাথে ফেসবুক পেজে যুক্ত হোন। ধন্যবাদ

Ruhul
Ruhulhttps://allgovtjobcircular.com
আমি শিক্ষা নিয়ে কাজ করি। লিখালিখি করতে ভালোবাসি। সেই সাথে ভালোবাসি মুক্তভাবে ঘুরে বেড়াতে। ব্লগিং আমার প্যাশন এবং ভালো লাগে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles

x